অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কিভাবে করা যায়?

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কিভাবে করা যায় বা নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে চান এবং এই সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে চান তাহলে এই পোষ্টটি আপনার জন্য। আপনার যদি ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন করা থাকে আপনি আপনি দ্রুত আবেদন করুন। কারণ জন্মের পর সরকারি খাতায় প্রথম নাম লেখানো হয় জন্ম নিবন্ধন এর মাধ্যমে। একটি শিশু বা নবজাতকের নাম ও জাতীয়তা নিশ্চিত করতে এটি হচ্ছে আইনগত প্রথম ধাপ। পৃথিবীতে একটি শিশু জন্মানোর পর রাষ্ট্র থেকে প্রথম যে স্বীকৃতি পায় সেটি হলো জন্ম নিবন্ধনের মাধ্যমে। জন্ম নিবন্ধনের মাধ্যমে একটি শিশু প্রথম নাগরিকত্ব লাভ করে। জন্মসনদ অত্যাবশ্যকীয় করার লক্ষ্যে সরকার নতুন করে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন প্রণয়ন করেছে। জন্ম নিবন্ধন আইন অনুসারে, বয়স, জাতি-গোষ্ঠি, ধর্ম-কিংবা জাতীয়তা সকল নির্বিশেষে বাংলাদেশে জন্ম গ্রহণকারী প্রত্যেকটি মানুষের জন্য জন্ম নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কিভাবে করা যায়

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কিভাবে করা যায়

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করার জন্য, আপনাকে আপনার জন্মস্থান বা স্থায়ী ঠিকানা, বিভাগ, জেলা এবং ওয়ার্ড ইত্যাদি নির্বাচন করতে হবে । অনলাইন জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরমটি প্রথমে বাংলা (ইউনিকোড) এবং তারপর বড় হাতের ওয়ার্ড দিয়ে ইংরেজিতে পূরণ করুন, তারপর প্রয়োজন অনুযায়ী সম্পাদনা করুন এবং সেভ বোতামে ক্লিক করুন। সেভ বোতামে ক্লিক করলে আবেদনপত্রটি সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রার অফিসে স্থানান্তরিত হবে, আবেদনকারীর আর কোনো সংশোধন করার সুযোগ থাকবে না। তারপর পরবর্তী ধাপে আপনি প্রিন্ট বোতামে ক্লিক করে আবেদনপত্রের একটি প্রিন্টের কপি পাবেন। জন্ম নিবন্ধন সনদের জন্য ১৫ দিনের মধ্যে উল্লিখিত আবেদনপত্রে প্রদত্ত সকল প্রয়োজনীয় কাগরপত্রের সত্যায়িত অনুলিপি সহ নিবন্ধক অফিসে যোগাযোগ করুন।

 জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগবে

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে যা যা লাগবে তা বয়স ভেদে নিম্নে সকল কাগজ পত্রের তথ্য নিম্নে প্রদান করা হল। কিন্তু পূর্বের মত জন্ম নিবন্ধন ফরম হাতে লিখে আবেদন করার সময় এখন আর নয়। এখন আবেদন করতে হবে অনলাইনের মাধ্যমে।

শিশুর বয়স যখন ০ দিন থেকে ৪৫ দিন হয় তাহলে, 

ক্রমিক নং ০ দিন থেকে ৪৫ দিন
০১ ইপিআই (টিকা) কার্ড
০২ পিতা ও মাতার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কপি
০৩ পিতা ও মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি
০৪ বাসার হোল্ডিং নম্বর এবং হাল সনের হোল্ডিং ট্যাক্সের রশিদ
০৫ আবেদনকারী পিতা-মাতা/ অভিভাবকের মোবাইল নম্বর

কোন বাচ্চার বয়স যখন ৪৬ দিন থেকে ৫ বছর হয় তাহলে, 

ক্রমিক নং ৪৬ দিন থেকে ৫ বছর
০১ ইপিআই (টিকা) কার্ড / স্বাস্থ্য কর্মীর প্রত্যায়নপত্র (স্বাক্ষর ও সীলসহ)
০২ পিতা ও মাতার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কপি
০৩ পিতা ও মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি
০৪ বাসার হোল্ডিং নম্বর এবং হাল সনের হোল্ডিং ট্যাক্সের রশিদ
০৫ আবেদন ফরমের সময় ১ কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
০৬ আবেদনকারী পিতা-মাতা/ অভিভাবকের মোবাইল নম্বর

কোন ব্যাক্তির বয়স যখন ৫ বছরের উপরে হয় তাহলে, 

ক্রমিক নং ৫ বছরের উপরে
০১ বয়স প্রমাণের জন্য চিকিৎসক কর্তৃক প্রত্যয়ন পত্র
০২ পিতা ও মাতার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কপি
০৩ পিতা ও মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি
০৪ বাসার হোল্ডিং নম্বর এবং হাল সনের হোল্ডিং ট্যাক্সের রশিদ
০৫ আবেদন ফরমের সময় ১ কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
০৬ সরকার কর্তৃক পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সার্টিফিকেট
০৭ জমি অথবা বাড়ি ক্রয়ের দলিল, খাজনা ও কর পরিশোধ রশিদ।
০৮ আবেদনকারী পিতা-মাতা/ অভিভাবকের মোবাইল নম্বর

জন্ম নিবন্ধন সনদ আবেদনজন্ম নিবন্ধন সনদ আবেদন :- আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন সনদ আবেদন করতে চান তাহলে ভিজিট করুন এই লিংক https://bdris.gov.bd এবং নিয়ম মেনে আবেদন করুন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

!-- Purple Patch Asynchronous JS Tag - Generated with Purple Patch v1.0.0 -->

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড :- এখন আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে চান তাহলে ভিজিট করুন এই লিংক https://bdris.gov.bd/br/search এবং সঠিক তথ্য দিয়ে যাচাই করুন। তারপর পাশে ডাউনলোড করার অপশনও পাবেন। সেখান থেকে আপনার সনদ ডাউনলোড করে নিন।

জন্ম নিবন্ধন কি কি কাজে লাগে :- জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত একজন ব্যক্তির নাগরিক পরিচয়ের সনদ হচ্ছে জন্ম নিবন্ধন। জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার আগে আমাদের যে কোন কাজেই জন্ম নিবন্ধন সনদ বাধ্যতামূলকভাবে ব্যবহার করতে হয়। চলুন জেনে আসি একনজরে জন্ম নিবন্ধন পত্র কোন কোন কাজে লাগে লাগতে পারে।

  1. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি
  2. জাতীয় পরিচয়পত্র প্রাপ্তি
  3. পাসপোর্ট ইস্যু
  4. ভোটার তালিকা প্রণয়ন
  5. বিবাহ নিবন্ধন
  6. সরকারী, বেসরকারী বা স্বায়ত্বশাসিত সংস্থায় নিয়োগদান
  7. ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু
  8. জমি রেজিষ্ট্রেশন
  9. ব্যাংক হিসাব খোলা
  10. আমদানি ও রপ্তানি লাইসেন্স প্রাপ্তি
  11. গ্যাস, পানি, টেলিফোন ও বিদ্যুৎ সংযোগ প্রাপ্তি
  12. ট্যাক্স আইডেন্টিফিকেশন নম্বর (টিআইএন) প্রাপ্তি
  13. ঠিকাদারী লাইসেন্স প্রাপ্তি
  14. বাড়ির নকশা অনুমোদন প্রাপ্তি
  15. গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন প্রাপ্তি
  16. ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তি

এছাড়া জীবনে চলার পথে বিভিন্ন কাজ কর্মে লাগতে পারে এই জন্ম নিবন্ধন সনদ।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন ফি
ক্রমিক নং  বয়স বাংলাদেশে  বিদেশে
০১ জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর্যন্ত কোন ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন ফি বিনা ফিসে
০২ জন্ম ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর হইতে ৫ (পাঁচ) বৎসর পর্যন্ত ২৫ টাকা ১ মার্কিন ডলার
০৩ জন্ম ৫ (পাঁচ) বৎসর পর কোন ব্যক্তি জন্ম নিবন্ধন ফি ৫০ টাকা ১ মার্কিন ডলার
০৪ জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ১০০ টাকা  ২ মার্কিন ডলার
০৫ সকল তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ৫০ টাকা ১ মার্কিন ডলার
০৬ বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় মূল সনদ বা তথ্য সংশোধন ফি বিনা ফিসে বিনা ফিসে
০৭ বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় নকল সরবরাহ ফি ৫০ টাকা ১ মার্কিন ডলার

 

জন্ম নিবন্ধন যাচাই, জন্ম নিবন্ধন অনলাইন, ,জন্ম নিবন্ধন স্থানীয় সরকার,  জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড অনলাইন কপি, জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড, জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করতে কি কি লাগে, জন্ম নিবন্ধন অনলাইন ফি কত, জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কি ভাবে করব, ,অন লাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই, অন লাইন জন্ম নিবন্ধন আবেদন, জন্ম নিবন্ধন আবেদন পত্র, জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম ডাউনলোড, জন্ম নিবন্ধন ইংরেজি কপি, জন্ম নিবন্ধন ইংরেজি কপি ডাউনলোড, জন্ম তথ্য নিবন্ধন, জন্ম নিবন্ধন এর কার্যালয়, জন্ম নিবন্ধন এর আবেদন, জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে, জন্ম নিবন্ধন করার নিয়ম, জন্ম নিবন্ধন কার্ড ডাউনলোড,

Leave a Comment