বাংলাদেশের সকল ইসলামী ব্যাংক ও তাদের ক্রেডিট কার্ড

বাংলাদেশে ১০ টি ইসলামী ব্যাংক রয়েছে। এই সকল ব্যাংক বাংলাদেশের কেন্দ্রীয়  বাংলাদেশ ব্যাংক এর আওতায়। সকল ইসলামী ব্যাংক গুলি ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক পরিচালিত। ইসলামী ব্যাংক গুলি যৌথ বিনিয়োগে প্রতিষ্ঠিত বাণিজ্যিক ব্যাংক। বাংলাদেশের সকল ইসলামী ব্যাংক ও তাদের ক্রেডিট কার্ড সম্পর্কে নিম্নে আলোচনা করা হলঃ

সকল ইসলামী ব্যাংক

সকল ইসলামী ব্যাংক

বাংলাদেশে পরিচালিত বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকের মধ্যে মোট ১০ টি ইসলামী ব্যাংকিং কার্যক্রম করে। বাংলাদেশের সকল ইসলামী ব্যাংক সম্পর্কে নিম্নে আলোচনা করা হলঃ

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডঃ ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড বাংলাদেশের ইসলামিক ব্যাংকিংয়ের অগ্রদূত। এটি দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম ইসলামি ব্যাংক যা ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক পরিচালিত। ব্যাংকটি ১৯৮৩ সালের ১৩ই মার্চ ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে এটির মোট ৩৫৭ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এই ব্যাংকটি বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মধ্যে সর্ববৃহৎ ব্যাংক। বর্তমান এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মূলধনি প্রতিষ্ঠান। অনুমোদিত ৫০০ মিলিয়ন টাকা এবং পরিশোধিত ৬৭.৫০ মিলিয়ন টাকা মূলধন নিয়ে ইসলামী ব্যাংক যাত্রা শুরু করেছিল। যা বর্তমানে বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে।

ইসলামি ব্যাংক এম ক্যাশ নামে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা প্রদান করছে। *২৫৯# কোড ডায়াল করে গ্রাহকগন এই সেবা নিতে পারেন।

 আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক লিমিটেডঃ আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক লিমিটেড (ICB Islamic Bank Limited) বাংলাদেশের একটি বণিজ্যিক ব্যাংক যেটি মূলত ইসলামী ব্যাংকিং ব্যবসায় জড়িত। এই ব্যাংকটি ১৯৮৭ সালের এপ্রিল মাসে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং সেই বছরেরই ২০ মে থেকে ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করে। বর্তমানে এটির মোট ৩৩ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর ১৩, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কাওরান বাজার, ঢাকা।

আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডঃ আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড বাংলাদেশের বেসরকারি খাতে ইসলামী শরিয়াভিত্তিক একটি বাণিজ্যিক ব্যাংক। আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড ১৯৯৫ সালে ১৮ জুন গঠিত হয় এবং ১৯৯৫ সালে ২৭ সেপ্টেম্বর বাণিজ্যিক যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে এটির মোট ১৮০ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর ৬৩, পুরানা পল্টন, ঢাকা।

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডেঃ সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড হচ্ছে বাংলাদেশের একটি শরীআহ ভিত্তিক পরিচালিত বাণিজ্যিক ব্যাংক। এই কোম্পানি আইন ১৯৯৪-এর অধীনে নিবন্ধিত হয়ে, ১৯৯৫ সালের ২২ নভেম্বর তারিখে সোস্যাল ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড নামে কার্যক্রম শুরু করে। পরে এটির নাম পরিবর্তন করে বর্তমান নাম “সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড” দেওয়া হয়। বর্তমানে এটির মোট ১৬১ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর ৯০/১, মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা।

এক্সিম ব্যাংকঃ এক্সপোর্ট ইম্পোর্ট ব্যাংক অব বাংলাদেশ লিমিটেড যার সংক্ষপ্তি নাম হল এক্সিম ব্যাংক। এক্সিম ব্যাংক নামে বর্তমান সুপরিচিত। এটি বাংলাদেশের একটি অন্যতম বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক। যা ১৯৯৯ সালের ৩ আগস্ট প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রথমে ব্যাংকটির নাম ছিল বেক্সিম ব্যাংক লিমিটেড। কিন্তু আইনগত সমস্যার কারণে ব্যাংকটিকে এক্সিম ব্যাংক নাম দেওয়া হয়। ব্যাংকটি মুসলিম ও অ-মুসলিম সবাইকে নিজস্ব প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যাংকিং সেবা দিয়ে থাকে। বর্তমানে এটির মোট ১৩১ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর ১৪২, গুলশান এভিনিউ, ঢাকা, বাংলাদেশ।

ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডঃ ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড হচ্ছে বাংলাদেশের একটি শরীআহ ভিত্তিক পরিচালিত ও পাবলিক লিমিটেড ব্যাংক। ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড ১৯৯৯ সালে ২৯ আগস্ট প্রতিষ্ঠিত হয়। ব্যাংকটি প্রতি বছর মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করে থাকে। বর্তমানে ব্যাংকটি ১৮৪ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর প্লট#৩, গুলশান এভিনিউ, গুলশান-১, ঢাকা, বাংলাদেশ।

শাহ্‌জালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডঃ শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (SIBL) হচ্ছে বাংলাদেশের একটি শরীয়াহ ভিত্তিক পরিচালিত প্রাইভেট বাণিজ্যিক ব্যাংক। ব্যাংকটি ২০০১ সালে ১০ মে প্রতিষ্ঠিত হয়।  এ ব্যাংকের সকল কার্যক্রম ইসলামী শরিয়াভিত্তিক পরিচালিত হয়। বর্তমানে ব্যাংকটি ১৩৪ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর প্লট#৪, গুলশান এভিনিউ, গুলশান-১, ঢাকা, বাংলাদেশ।

ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেডঃ ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেড বাংলাদেশের একটি বণিজ্যিক ব্যাংক। এটি বাংলাদেশের একটি শরীআহ ভিত্তিক পরিচালিত ও পাবলিক লিমিটেড ব্যাংক। এই ব্যাংকটি ২০১৩ সালের ১ এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে ব্যাংকটি ৯০ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর ৭২,গুলশান এভিনিউ, গুলশান-১, ঢাকা, বাংলাদেশ।

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডঃ স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড বাংলাদেশ এর বেসরকারি ব্যাংক। যেটি ১৯৯৯ সালের ১১ মে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি একটি বেসরকারি ব্যাংক যা শরীআহ ভিত্তিক পরিচালিত। বর্তমানে ব্যাংকটি ১৩৮ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর, মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা, বাংলাদেশ।

গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডঃ এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক লিমিটেড ছিলো তার পূর্বে নাম। এবং বর্তমান মান হল গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড। এটি হলো বাংলাদেশের একটি বাণিজ্যিক ব্যাংক। বর্তমানে ব্যাংকটি ৬৯ টি শাখা নিয়ে তাদের সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর সদরদপ্তর, গুলশান এভিনিউ, গুলশান-১, ঢাকা, বাংলাদেশ।

ইসলামী ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

ইসলামী ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

বাংলাদেশের সকল ইসলামী ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড সম্পর্কে নিম্নে আলোচনা করা হলঃ

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড নতুন একটি ক্রেডিট কার্ড চালু করেছে। যা ইসলামী ব্যাংক খিদমাহ কার্ড নামে পরিচিত। ইসলামী ব্যাংক খিদমাহ ক্রেডিট কার্ড সম্পূর্ণ ইসলামী শরিয়া নিয়ম অনুসারে পরিচালিত।

আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ

আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড নতুন ক্রেডিট কার্ড চালু করেছে যার নাম হল লা-রিবা ইসলামী কার্ড ক্রেডিট ।

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডের নাম হল এসআইবিএল ক্রেডিট কার্ড। যটি সম্পূর্ণ ইসলামী শরিয়া নিয়ম অনুসারে পরিচালিত।

এক্সিম ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ এক্সিম ব্যাংক বাই-মুরবাহার নীতির অধীনে সম্পূর্ণ শরিয়াহ ভিত্তিক ইসলামিক বিনিয়োগ কার্ড। এক্সিম ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড এটি বাংলাদেশের যে কোনও ইসলামিক ব্যাংকের জন্য প্রথম একটি ইসলামিক বিনিয়োগ পণ্য।

ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ

শাহ্‌জালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ

ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ ইস্টার্ন ব্যাংক তাদের গ্রাহকদের জন্য বিভিন্ন ধরনের ক্রেডিট কার্ড সেবা দিয়ে থাকে। এই ব্যাংকের কার্ডের নাম হলো ইবিএল ক্রেডিট কার্ড। আপনি এই কার্ড ব্যাবহার করে নগদ অর্থ বহনের ঝুঁকি থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে বিভিন্ন সেবা প্রদান করে। যা স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক টাইটেনাম ক্রেডিট কার্ড নামে পরিচিত। এই কার্ডের বার্ষিক ফি  ৫,০০০ টাকা, তবে যারা একাধিক ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করছেন তাদের জন্য ২,০০০ টাকা।

গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ক্রেডিট কার্ডঃ


বাংলাদেশের সকল ইসলামী ব্যাংক ও তাদের ক্রেডিট কার্ড, বাংলাদেশের সকল ইসলামী ব্যাংক, সকল ইসলামী ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড,  ইসলামী ব্যাংক ক্রেডিট কার্ডের নাম, সকল ইসলামী ব্যাংকের নাম, ইসলামী ব্যাংকের ঠিকানা, সকল ইসলামী ব্যাংক ঠিকানা

Leave a Comment