ক্রেডিট কার্ড করার নিয়ম

ক্রেডিট কার্ড আজকাল খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কিন্তু আমরা অনেকেই মনে করি এটি একটি সমস্যা কারণ আমাদের এটি সম্পর্কে তেমন ভালো ধারণা নেই। আসুন ক্রেডিট কার্ড করার নিয়ম এবং ক্রেডিট কার্ড বানাতে কি কি লাগে সে সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে আসি। ক্রেডিট কার্ড হল এক ধরনের কার্ড যা আপনাকে নগদ টাকার পরিবর্তে কেনাকাটা করতে দেয় এবং পরিবর্তে আপনার কেনা পণ্যের বিল আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হয়। ক্রেডিট কার্ড হল একটি ব্যাংক থেকে ঋন, যার অধীনে আপনি এটি একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কেনাকাটা এবং কাজ করার জন্য ব্যবহার করতে পারেন। তারপর আপনাকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সেই পরিমাণ টাকা আপনার ব্যাংকে ফেরত দিতে হবে।

ক্রেডিট কার্ড করার নিয়ম

ক্রেডিট কার্ড করার নিয়ম

ক্রেডিট কার্ড করার জন্য কিছু কাগজপত্র এবং যোগ্যতা প্রয়োজন। প্রায় সব ব্যাংকে একই কাগজপত্রের প্রয়োজন হয় অথবা সামান্য ব্যতিক্রম হতে পারে। চলুন জেনে আসি ক্রেডিট কার্ড করার ব্যাংকের প্রয়োজনীয় সমস্ত নথি পত্র সম্পর্কে কিছু তথ্য নিম্নে দেখুন,

সকলের ক্ষেত্রেঃ  ক্রেডিট কার্ড বানাতে হলে আপনাকে সবার আগে একটি ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে। যে কোন ব্যাংক থেকে আপনার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার পর আপনাকে সেই অ্যাকাউন্টে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা দিতে হবে। কোন পেশায় নিযুক্ত থাকলে সেই পেশায় নিযুক্ত কোন কপি দেখতে হবে, দুই কপি ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি, বিদ্যুৎ কিংবা গ্যাস বিলের কপি এবং ঘনিষ্ট ব্যাক্তির রেফারেন্স।

চাকরিজীবীঃ যদি আপনি চাকরিজীবী হন তাহলে, বেতন সার্টিফিকেট, ব্যাংক স্টেটমেন্ট (৬ মাস / ৩মাস), কমপক্ষে ৬ মাসের বেতন ব্যাংকে জমা দিতে হবে, একই কোম্পানিতে কমপক্ষে ৬ মাস কাজ করতে হবে, বেতন ন্যূনতম ৩০ হাজার হতে হবে , টিআইএন সার্টিফিকেট, ন্যাশনাল আইডি কার্ড, কোনো সহকর্মী বা আত্মীয়ের রেফারেন্স ইত্যাদি দিতে হবে

 

ব্যাবসায়ীঃ  আপনি যদি ব্যবসায়ী হন, এক বছরের ব্যাংক লেনদেন, টিআইএন সার্টিফিকেট, স্টেটমেন্ট, ট্রেড লাইসেন্স, জাতীয় পরিচয়পত্র, কমপক্ষে ১০ লক্ষ টাকার লেনদেন ইত্যাদি তথ্য দিতে হবে।

অন্যান্য পেশাঃ পেশাজীবী ডাক্তার ইঞ্জিনীয়ার কিংবা উকিল হলে এসবের পাশাপাশি লাইসেন্সের কপি দিতে হয়।

প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রঃ এছাড়াও সবার ক্ষেত্রেই দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, নমিনীর ছবি, বাসার বিদ্যুৎ বিলের কপি কিংবা পানি বা গ্যাস বিলের কপি ইত্যাদি জমা দিতে হবে।

আবেদন ফর্ম পূরণঃ সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে, একটি ব্যাংক প্রতিনিধি আপনার কাছে আসবে এবং একটি আবেদন ফর্ম পূরণ করবে। এটি একটি সিআইবি রিপোর্টও নেয় যা ব্যাংক গ্রহণ করবে। যার মাধ্যমে আপনি একটি নির্ভরযোগ্য ক্রেডিট কার্ড পাবেন।

 

credit card করার নিয়ম, ক্রেডিট কার্ড করতে কি লাগে, ক্রেডিট কার্ডের নিয়মাবলী, ক্রেডিট কার্ড করতে কি কি লাগে, ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম, ক্রেডিট কার্ড খোলার নিয়ম, ক্রেডিট কার্ড করতে কত টাকা লাগে, ক্রেডিট কার্ড নেয়ার নিয়ম, ক্রেডিট কার্ড তৈরি, ক্রেডিট কার্ড এর সুবিধা, ক্রেডিট কার্ড কিভাবে পাবো, ক্রেডিট কার্ড করার নিয়ম

Leave a Comment