দাজ্জালকে কোথায় মারা হবে এবং কে মারবেন

আপনার জানতে আগ্রহ প্রকাশ করছে যে দাজ্জালকে কোথায় মারা হবে এবং কে মারবেন তাহলে চলুন জেনে আসি। দাজ্জাল হলো ইসলামি পরকালবিদ্যা অনুসারে একটি অশুভ চরিত্র। বিভিন্ন স্থান থেকে সাধারণত পূর্বাঞ্চল, খোরাসান বা সিরিয়া ও ইরানের মধ্যবর্তী কোনো এলাকা থেকে তার আগমন ঘটবে বলে ধারণা করা। দাজ্জাল চরিত্রটি খ্রিষ্টান পরলোকতত্ত্বে বর্ণিত খ্রীষ্টারি চরিত্রের সঙ্গে সাদৃশ্যপূর্ণ। দাজ্জাল শব্দটি আরবি, দাজ্জাল বিশেষণের অতিরঞ্জন যার অর্থ মিথ্যা বা প্রতারণা। এর অর্থ প্রতারক এবং শব্দটি সুরিয়ানি ভাষায় দগ্গালার সমার্থক। আল-মাসিহ আদ-দাজ্জাল শব্দগুচ্ছের অর্থ হল প্রতারক মসীহ যার দ্বারা শেষ যুগের একজন প্রতারককে বোঝানো হয়েছে। দজ্জাল এক অশুভ সত্তা যে প্রকৃতি মসীহের ছদ্মবেশ ধারণ করবে।

দাজ্জালের উত্থানের সাথে বেশ কিছু স্থান জড়িত, তবে সাধারণভাবে সে পূর্ব দিক থেকে বের হবে। তাকে সাধারণত এক চোখে অন্ধ হিসাবে বর্ণনা করা হয়; যে কোন চোখে তিনি অনিশ্চিত এবং কারো সাথে বিবাদে অন্ধ। যাইহোক, তার উভয় চোখই ত্রুটিযুক্ত বলে মনে করা হয় – অন্তত – একজন সম্পূর্ণ অন্ধ এবং অন্যটি বাইরে। ত্রুটিপূর্ণ চোখ রাখা প্রায়ই খারাপ লক্ষ্য অর্জনের জন্য আরও শক্তি প্রদান হিসাবে দেখা হয়। তিনি মক্কা ও মদিনা ব্যতীত প্রতিটি শহরে প্রবেশ করে সারা বিশ্ব ভ্রমণ করতে পারবেন।

দাজ্জালকে কোথায় মারা হবে

দাজ্জালকে কোথায় মারা হবে

পৃথিবীর শেষ প্রান্তে দাজ্জাল নিজেকে ঈশ্বর বলে দাবি করবে। এতে বিশ্বে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হবে, বিপর্যয় ছড়িয়ে পড়বে। অবশেষে ঈসা (আঃ) আসবেন এবং দাজ্জালকে হত্যা করবেন এবং বিশ্ববাসীকে ফিতনা থেকে মুক্ত করবেন। ঈসা (আঃ) দাজ্জালকে কোথায় হত্যা করবেন তা রাসূল (সাঃ) এর বিভিন্ন হাদীস বর্ণনা করে। মুজাম্মা ইবনে জারিয়া আনসারী (রা.) বর্ণনা করেন যে, আমি রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-কে বলতে শুনেছি যে,

দাজ্জালকে কে কোথায় হত্যা করবে:-  হবে ঈসা ইবনে মারিয়াম দাজ্জালকে বাবে লুদে হত্যা করবেন। (মুসনাদ আহমাদ, খণ্ড ৩, পৃষ্ঠা ৪২০; সুনানে তিরমিজি, হাদিস : ২২৪৪)

বিভিন্ন হাদিসের বর্ণনায় বাবে লুদ বা লুদের ফটক কথাটি এসেছে। লুদ বর্তমান ইসরায়েল অধিকৃত ঐতিহাসিক ফিলিস্তিন ভূখণ্ডের একটি ছোট শহর, যা তেল আবিব থেকে ১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত।

মুসলমানদের মতে, দাজ্জাল একজন মানুষ এবং দাজ্জাল যখন আবির্ভূত হবে তখন তার চল্লিশ দিন থাকবে- প্রথম দিন হবে এক বছরের মতো, পরের দিন হবে এক মাসের মতো, পরের দিন হবে এক সপ্তাহের মতো এবং তার বাকি দিনগুলো স্বাভাবিক দিনের মতোই কাটবে। দাজ্জালের আবির্ভাবের পরপরই, ‘ঈসা (আঃ) দামেস্কের পূর্বে একটি সাদা মিনারে অবতরণ করবেন, যা সিরিয়ার দামেস্কের উমাইয়া মসজিদে অবস্থিত বলে বিশ্বাস করা হয়।

৪০ দিন পর দাজ্জালকে লোদের গেটে ধাওয়া করা হবে যেখানে তাকে ‘ইসা ইবনে মরিয়ম’ ধরে হত্যা করবে। তারপর তিনি ক্রুশ ভাঙবেন, শূকরকে হত্যা করবেন, জিজিয়া বিলুপ্ত করবেন এবং সমস্ত জাতির মধ্যে শান্তি স্থাপন করবেন। ঈসা (আ) এর শাসন ন্যায়সঙ্গত হবে এবং সবাই তাঁর কাছে এক সত্য ধর্মের মাঝে প্রবেশ করবে।

Leave a Comment