বিনা পুঁজিতে অনলাইন ব্যবসা

বর্তমান যুগ তথ্য প্রযুক্তির যুগ, এই সময়ে চাকরি না পেয়ে ঘরে বসে থাকার কোনো মানে হয় না। আপনার যদি একটি ল্যাপটপ বা একটি কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট সংযোগ থাকে তবে আপনি চাকার পিছনে না তাকিয়ে বাড়িতেই কোনও পুঁজি ছাড়াই বিভিন্ন ব্যবসা করতে পারেন। আজকের  চলুন এমন কিছু কাজের কথা বলি যা পুঁজি ছাড়াই করা যায়।

স্বাধীনভাবে নিজেদের মেলে ধরার সুযোগে অনেকেই বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তির তাগিদে বিনা পুঁজি নিয়ে অনলাইন ব্যবসা করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন। অনেকে অনলাইনে ব্যবসা করতে চাইলেও পুঁজি ছাড়া কীভাবে ব্যবসা শুরু করবেন তা বুঝতে পারেন না। আবার ব্যবসা শুরু করলেও লাভ হবে কি না, এসব প্রশ্ন অনেকের মনেই থাকতে পারে। যাইহোক, আপনি শুধুমাত্র আপনার দক্ষতা এবং কঠোর পরিশ্রম মিশ্রিত করে অনলাইন ব্যবসায় সফল হতে পারেন। চলুন জেনে আসি অনলাইন কি কি করলে ভালো অর্থ আয় করা যায়।

ক্রমিক নং বিনা পুঁজিতে অনলাইন ব্যবসার নাম
০১ কন্টেন্ট রাইটিং
০২ বিজনেস প্রশিক্ষণ
০৩ অনলাইন শপ
০৪ হস্তশিল্প বিক্রয়
০৫ ডেটা এন্ট্রি
০৬ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কনসালটেন্ট
০৭ অ্যাপ ডেভলপার
০৮  ফ্রিল্যন্সার
০৯ ওয়েব ডিজাইন
১০ আবেদনপত্র কভার লেটার লেখা
১১ ই–বুক লেখক
১২ টাস্ক ম্যানেজার সহকারী

বিনা পুঁজিতে অনলাইন ব্যবসা

বিনা পুঁজিতে অনলাইন ব্যবসা

কন্টেন্ট রাইটিং

অনলাইনে অর্থ উপার্জনের সবচেয়ে সুবিধাজনক উপায় গুলির মধ্যে একটি হল একটি ব্লগ লেখা বা কন্টেন্ট রাইটার। আপনি চাইলে আপনার নিজের ওয়েবসাইটে বা অন্য ক্লায়েন্টের জন্য ব্লগ লিখতে পারেন। এছাড়াও আপনি বিভিন্ন কোম্পানির জন্য পণ্যের বিবরণ থেকে শুরু করে পণ্যের পর্যালোচনা, ওয়েব বিষয়বস্তু, প্রতিলিপি, অনুবাদ ইত্যাদি বিষয়ের বিস্তৃত পরিসর লিখতে পারেন।এছাড়া আপনি বিভিন্ন সংবাদপত্র বা ম্যাগাজিনে বিভিন্ন বিষয়ে লিখে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। তাই লেখালেখিতে দক্ষতা থাকলে আপনি ঘরে বসর বিনা পুজিতে আয় করতে পারবেন।

বিজনেস প্রশিক্ষণ

আপনার ব্যবসা সম্পর্কে ভাল ধারণা থাকতেই পারে।  কিন্তু টাকার অভাবে সে স্বপ্ন অনুযায়ী সংগঠন করতে পারছে না। বসে বসে সময় নষ্ট করে লাভ নেই। আপনি অনলাইনে অনেক লোক পাবেন যারা একটি নতুন ব্যবসা শুরু করতে চান। লিংকডইনে যান, যেখানে আপনি ব্যবসা সম্পর্কিত নিবন্ধ লিখতে পারেন। এর মাধ্যমে আপনি সেখানে অনেক ক্লায়েন্ট পাবেন। আপনি তাদের ভাল পরামর্শের মাধ্যমে আপনার প্রতিভা এবং অভিজ্ঞতাকে আরও উন্নত করতে সক্ষম হবেন। সেই সঙ্গে দুই টাকা আয় করতে পারবেন।

অনলাইন শপ

অনেকেই অনলাইন শপের মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছেন। অল্প পুঁজি দিয়ে, আপনি আপনার বন্ধু বা কারও সাথে অংশীদারিত্ব করে বা নিজেরাই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে জীবিকা অর্জন করতে পারেন।এক্ষেত্রে আপনি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট বা ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে আপনার পণ্য বিক্রি করতে পারেন। এছাড়াও এখন অনেক ই-কমার্স সাইট তৈরি হচ্ছে। আপনি এই ই-কমার্স সাইটেও আপনার দোকান খুলতে পারেন।ভালো পণ্য, বিপণন দক্ষতা, যথাসময়ে ডেলিভারি ইত্যাদির উপর ফোকাস করে আপনি আপনার অনলাইন শপকে আপনার গ্রাহকদের কাছে আরও নির্ভরযোগ্য করে তুলতে পারেন এবং মাসে ভালো টাকা আয় করুন।

হস্তশিল্প বিক্রয়

আধুনিক সময়ে মেশিনের যুগে হস্তশিল্পের কদর একেবারেই কমেনি। সুধু প্রচারের অভাবে প্রাচীন এই শিল্পটি মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারছে না। আপনি এই ধরনের একটি সংস্থার সাথে চুক্তি করতে পারেন। আপনি অনলাইনে তাদের পণ্য বিক্রি করেন। আপনি গ্রাহকের কাছ থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিষেবা চার্জ দিয়ে কুরিয়ারের মাধ্যমে পণ্যটি সরবরাহ করতে পারেন। এতে আপনার পণ্য নিজের টাকা ব্যয় করে পণ্য বিক্রয় করা লাগছে না এবং আপনি অন্যের পণ্য বিক্রয় করে ভালো অর্থ পাচ্ছেন। এভাবে বলা যায যে কৈয়ের তেলে কৈ ভাজার মত অবস্থা।

ডেটা এন্ট্রি

প্রায় সব ধরনের কোম্পানিকে তাদের ব্যবসায়িক লেনদেনের হিসাব, অপারেশন এবং কর্মচারীদের তথ্য একটি নির্দিষ্ট ডাটাবেসে রাখতে হয়। মূলত এই কাজগুলো ডাটা এন্ট্রি। বিভিন্ন ছোট কোম্পানি ফুল টাইম কর্মীদের পরিবর্তে বিভিন্ন ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের সাথে এই কাজ গুলিকে নিয়োগ করে। আপনি যদি মাইক্রোসফ্ট ওয়ার্ড, এক্সেল ইত্যাদি অ্যাপ্লিকেশন গুলির সাথে কাজ করতে দক্ষ হন তবে আপনি বিভিন্ন সংস্থার ডেটা এন্ট্রি অপারেটর হিসাবেও কাজ করতে পারেন। তাই আপনিও ঘরে বসেই বিভিন্ন কোম্পানীর বিভিন্ন ডাটা এন্ট্রি করে সহজেই টাকা আয় করতে পারবেন।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কনসালটেন্ট

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন হলো অন্য সাইটকে ছাড়িয়ে একটি নির্দিষ্ট বিষয়ের অনুসন্ধান করে একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটকে প্রথমে উপস্থিত করার চেষ্টা করে। সহজ কথায়, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) হল সার্চ ইঞ্জিন নিয়মের একটি সেট যা অনুসরণ করা বা প্রয়োগ করা হলে, সার্চ ইঞ্জিনগুলি পছন্দসই ওয়েবসাইটটিকে তাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ মনে করে এবং তাদের র‌্যাঙ্ক করে। আজকের প্রতিযোগিতার বিশ্বে এসইও ছাড়া সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভিজিটর বা ট্রাফিক পাওয়া প্রায় অসম্ভব। এগুলা করার ক্ষেত্রে কিওয়ার্ড এনালাইসিস, ভিডিও ইমেজ, ওয়েবপেজ, পিডিএফ ইত্যাদির মাধ্যমে বিভিন্ন তথ্য ক্রল ও ইনডেক্স করে যাতে নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটটি কাঙ্খিত ভিজিটরদের সার্চের শীর্ষে থাকে,তাই সকল কোম্পানি গুলোকে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজারের দিকে ঝুঁকতে হয়।

আপনি এই কোম্পানি গুলিকে একটি নির্দিষ্ট ফি দিয়ে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের বিভিন্ন টিপস দিতে পারেন। তাই আপনি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের বিভিন্ন বিষয় যেমন ওয়েব অ্যানালিটিক্স, লিঙ্ক বিল্ডিং, সোশ্যাল বুকমার্কিং ইত্যাদি সম্পর্কে ধারণা নিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির জন্য নন-ক্যাপিটাল সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কনসালটেন্ট হিসেবে কাজ করে সহজেই টাকা আয় করতে পারবেন।

অ্যাপ ডেভলপার

স্মার্টফোনের যুগে অ্যাপস প্রচুর। লোকেরা এখন কম্পিউটারে বসে সাইট ব্রাউজ করার চেয়ে স্মার্টফোন অ্যাপে কাজ করতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। তাই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এখন অ্যাপ তৈরিতে আগ্রহী। আপনি যদি কোডিং ভালো জানেন, তাহলে অ্যাপ ডেভেলপিংয়ে জড়িত হন। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি করতে পারে। বিভিন্ন সফটওয়্যার ডেভেলপার কোম্পানিও চায় অনলাইন ডেভেলপার। প্রথমে একটি আকর্ষণীয় অ্যাপ তৈরি করুন এবং এটিকে একটি নমুনা হিসাবে দেখান এবং একটি যুক্তিসঙ্গত ফি দাবি করুন। আপনার চাকরি নিশ্চিত।

অনলাইন ব্যবসা

অনলাইন ব্যবসা

ফ্রিল্যন্সার

ফ্রিল্যান্সিং বলতে আমরা সাধারণত অবসর কাজকে বুঝি। তবে সময়ের সাথে সাথে এটি পরিবর্তন হয়ে গেছে। এখন অনেক বেকার যুবক ফ্রিল্যান্সিংকেই তাদের প্রধান পেশা হিসেবে নিচ্ছে। আপনি চাইলে এখানে পার্ট টাইম কাজও করতে পারেন। অলস বসে না থেকে আজই ফ্রিল্যান্সিং সাইটে যোগ দিন। এবং তাদের মত আপনিও ভাল অর্থ উপার্যন করুন।

ওয়েব ডিজাইন

বর্তমান এটি আমাদের সময়ের সবচেয়ে আলোচিত ব্যবসা। এখন এমনকি একটি ছোট সংস্থা মনে করে যে তাদের একটি ওয়েবসাইট থাকা দরকার। ওয়েব ডিজাইন জানা থাকলে স্থির হয়ে বসে থাকার কোন মানে নেই। ফ্রিল্যান্স সাইটগুলিতে আপনার পোর্টফোলিও পোস্ট করুন। ওয়েবসাইটে একটি লিঙ্ক সহ একটি নমুনা রাখুন। বাজার মূল্য বিবেচনা করে সাশ্রয়ী মূল্যে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করুন।  তাহলে আপনি দেখবে অল্প দিনে আপনি ভালো ফল পাবেন।

আবেদনপত্র কভার লেটার লেখা

আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে, অনেক শিক্ষিত মানুষই জানেন না কিভাবে চাকরির আবেদন সুন্দর করে লিখতে হয়। কিন্তু একটি সুন্দরভাবে গৃহীত আবেদনপত্র বা কভার লেটার কর্মক্ষেত্রে পার্থক্য আনতে পারে। আপনার যদি এই ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা থাকে তবে আপনি  সামাজিক সাইটগুলিতে এই বিষয়ে ক্লায়েন্ট খুঁজে পেতে পারেন। ক্লায়েন্ট পাবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। এই ভাবে আপনি বিনা অর্থে ভালো টাকা আয় করতে পারবেন।

 

ই–বুক লেখক

আপনার যদি ভাল লেখার দক্ষতা, ভাষার দক্ষতা এবং টাইপিং গতি থাকে তবে আপনি সহজেই একজন ই-বুক লেখক হতে পারেন। এটি একটি খুব সহজ কাজ। ই-বুকের চাহিদা এত পরিমাণে বাড়ছে যে এর ফলে ই-বুক রাইটার খুঁজতে পাবলিকেশন্সগুলো হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। আপনি সহজেই এই ধরনের গ্রাহকদের অনলাইন খুঁজে পেতে পারেন এবং তাদের কাছ থেকে কাজ নিয়ে বিনা অর্থে ভালো অর্থ উপার্জন করে সাবলম্বী হতে পারেন।

টাস্ক ম্যানেজার সহকারী

আপনার যদি ভাল সাংগঠনিক দক্ষতা থাকে তবে আপনি এই ব্যবসার জন্য উপযুক্ত। আপনি অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার দ্রুত সমাধান করতে পারেন? যাইহোক, আপনি একটি ব্যক্তিগত সহকারী বা অনলাইন টাস্ক ম্যানেজার হিসাবে এই দক্ষতা ব্যবহার করতে পারেন। বিভিন্ন কোম্পানি অর্থের জন্য আপনার মতো লোকদের খুঁজছে। এই সাইটগুলিতে আপনি ডেটা গবেষণা, ভার্চুয়াল সহকারী সহ বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করতে পারেন এবং আপনি এই কাজ গুলি করে ভালো অর্থ উপাজন করতে পারেন।

বিনা পুঁজিতে অনলাইন কি ব্যবসা করা যায়, ঘরে বসে বিনা পুঁজিতেঅনলাইন ব্যবসা, বিনা পুজিতে অনলাইন লাভজনক ব্যবসা, অনলাইনে কিভাবে অনলাইন ব্যবসা করব, বিনা চালানে অনলাইন ব্যবসা, বিনা পুঁজিতে লাভজনক ব্যবসা,

Leave a Comment