তথ্য ভাণ্ডারপড়ালেখা

বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা ২০২০

প্রতি বছর বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকা প্রকাশ করে লন্ডনভিত্তিক শিক্ষা বিষয়ক সাময়িকী টাইমস হায়ার এডুকেশন । এ বছরের প্রকাশিত  তালিকায় বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান এক হাজারের পরে। শীর্এষ এক হাজারে বাংলাদেশের কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান নাই ।  ৯২টি দেশের ১৩ শ বিশ্ববিদ্যালয় এর তালিকা প্রকাশ করা  হয়েছে। বাংলাদেশের একমাত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ই এ তালিকাতে স্থান পেয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর শিক্ষার  পরিবেশ, গবেষণার সংখ্যা ও সুনাম, সাইটেশন বা গবেষণার মান , এ খাত থেকে আয় এবং আন্তর্জাতিক যোগাযোগ বা সংশ্লিষ্টতাসহ ৫টি মানদণ্ড বিশ্লেষণ করে এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে।

বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা ২০২০

বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়

বিশ্বের সেরা ২০ বিশ্ববিদ্যালয়: 

বিশ্বের সেরা ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ টিই হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের।সেগুলো হচ্ছে  ম্যাসাসুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি(১ম), স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়(২য়), হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়(৩য়), ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি(৪র্থ), শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়(৯ম),ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া(১০ম),কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি (১১তম),ইউনিভার্সিটি অফ পেনসিল্ভানিয়া(১৩ তম), জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটি(১৫ তম), ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফর্নিয়া লস এঞ্জেলস (১৬ তম),কর্নেল ইউনিভার্সিটি (১৮ তম) ,ইউনিভার্সিটি অফ ওয়াশিংটন (১৯তম)।

যুক্তরাজ্যের আছে চারটি বিশ্ববিদ্যালয়: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়(৫ম), কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়(৬ষ্ঠ), ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডন(৮ম), ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন(১০ম)।

যুক্তরাষ্ট্র , যুক্তরাজ্য ছাড়া সেরা ২০ এ আছে আরো দুটি দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ।সুইজারল্যান্ডের সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনলজি(৭ম),নায়াং টেকনোলোজি ইউনিভার্সিটি অফ সিংগাপুর (২০ তম)।

বিশ্বের সেরা ১০ বিশ্ববিদ্যালয় এর বিস্তারিত 

১.ম্যাসাসুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি ঃ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেট্‌স অঙ্গরাজ্যের কেমব্রিজে অবস্থিত একটি বেসরকারি গবেষণা বিশ্ববিদ্যালয়, যেটাকে পৃথিবীর সবথেকে মর্যাদাপূর্ণ একটি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গণ্য করা হয়। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮৬১ সালে।প্রতিষ্ঠানটি ঐতিহ্যগতভাবে ভৌত বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিদ্যায় গবেষণা এবং শিক্ষার জন্য পরিচিত, পাশাপাশি সাম্প্রতিক কালে জীববিদ্যা, অর্থনীতি, ভাষাবিদ্যা, এবং ব্যবস্থাপনার জন্যও পরিচিত।২০১৫ সাল অনুযায়ী, ৮৫ জন নোবেল বিজয়ী, ৫২ জন ন্যাশনাল মেডেল অব সায়েন্স বিজেতা,৬৫ জন মার্শাল স্কলার, ৪৫ জন রোডস স্কলার, ৩৮ জন ম্যাকআর্থার ফেলো, ৩৪ জন মহাকাশচারী, ১৯ জন টুরিং পুরস্কার বিজয়ী, ১৬ জন মার্কিন বিমান বাহিনীর প্রধান বিজ্ঞানী এমআইটির সাথে সম্পর্কযুক্ত রয়েছেন।

২। স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ঃ    মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম সেরা বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়। এটি ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে সান ফ্রান্সিসকো শহরের ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে এবং সান হোসে শহরের ৩২ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে পালো আল্টো শহর তথা সিলিকন ভ্যালির কাছে স্ট্যানফোর্ড শহরে অবস্থিত।স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষকদের মধ্যে ৫১ জন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী, ১৯ জন টুরিং পুরস্কার বিজয়ী রয়েছেন। স্ট্যানফোর্ডের বর্তমান সম্প্রদায়ের মধ্যে ১৭ জন নোবেল বিজয়ী, ৪ জন পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী, ১৫০ জন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় বিজ্ঞান একাডেমীর সদস্য, ৯৪ জন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় প্রকৌশল একাডেমীর সদস্য, ৬৪ জন ইনস্টিটিউট অব মেডিসিনের সদস্য, ১৮ জন ন্যাশনাল মেডেল অব সায়েন্স বিজয়ী, ২ জন ন্যাশনাল মেডেল অব টেকনোলজি বিজয়ী, ৩ জন প্রেসিডেন্সিয়াল মেডেল অব ফ্রিডম বিজয়ী।

৩।হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ঃ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয়। উচ্চ শিক্ষামানের জন্য প্রসিদ্ধ এই শিক্ষায়তন আইভি লীগের সদস্য। এটি ম্যাসাচুসেট্‌স-এর বোস্টনে অবস্থিত। ১৬৩৬ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়।

৪।ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি  ঃ ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি   যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যের পাসাডেনায় অবস্থিত একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে প্রাকৃতিক বিজ্ঞান ও প্রকৌশলের উপর জোর দেয়া হয়। এছাড়াও এখানে নাসার স্বায়ত্বশাসিত জেট প্রোপালশন ল্যাবরেটরি অবস্থিত, যেটিতে নাসার বেশিরভাগ মহাশূন্যযানের ডিজাইন ও কার্যকারিতা দেখাশোনা করা হয়। ছাত্রসংখ্যার দিক থেকে ক্যালটেক একটি ছোট বিশ্ববিদ্যালয় হলেও এটি বিভিন্ন বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে সেরা দশ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি হিসেবে স্থান পেয়ে আসছে। এর ৩১ জন শিক্ষার্থী ও শিক্ষক নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। এর ছয়জন শিক্ষার্থী টুরিং পুরস্কার অর্জন করেছেন।

৫।অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ঃ ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ড শহরে অবস্থিত অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় (ইংরেজি: University of Oxford) ইংরেজি ভাষাভাষী জগতের সবচেয়ে পুরাতন বিশ্ববিদ্যালয়। ধারণা করা হয় ১১শ শতাব্দীর শেষ দিকে অথবা ১২শ শতাব্দীর প্রথমে এই বিশ্ববিদ্যালয় যাত্রা শুরু করে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় বর্তমানে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অন্যতম হিসেবে সর্বস্বীকৃত।

৬।কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ঃ  ইংল্যান্ড এর কেম্ব্রিজ শহরে অবস্থিত একটি বিশ্ববিদ্যালয়। এটি ইংরেজিভাষী বিশ্বের দ্বিতীয় প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয় (অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এর  পরে) এবং বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলির একটি হিসেবে পরিগণিত।প্রাচীন নথিপত্র অনুসারে ১২০৯ সালে অক্সফোর্ডের কিছু পণ্ডিতব্যক্তি স্থানীয় লোকদের সাথে বিবাদের জের ধরে শহর ছেড়ে চলে যান এবং কেমব্রিজ  শহরে এসে নিজেদের সংগঠন গড়ে তোলেন। এটিই পরে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হয়।

৭।সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনলজি ঃ সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনলজি সুইজারল্যান্ডের জুরিখে অবস্থিত একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। একে মাঝে মাঝে Swiss Federal Institute of Technology নামে ডাকা হয়। এর মূল জার্মান নাম হচ্ছে Eidgenössische Technische Hochschule Zürich যার সংক্ষিপ্ত করলে দাঁড়ায় ETHZ; এই সংক্ষেপণটিও দাপ্তরিক কাজে ব্যবহার করা হয়। এই প্রতিষ্ঠানটি সরাসরি সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় অর্থনৈতিক সম্পর্ক, শিক্ষা ও গবেষণা অধিদপ্তর-এর অধিভূক্ত।

৮।ইম্পেরিয়াল কলেজ ঃইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডন  যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অবস্থিত একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। এটি বিজ্ঞান, প্রকৌশল, চিকিৎসাবিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষায় গুরুত্বারোপ করে। এই বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বের মর্যাদাপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি হিসেবে গণ্য করা হয়। ইম্পেরিয়ালের প্রধান ক্যাম্পাস সেন্ট্রাল লন্ডনের দক্ষিণ কেনসিংটনে অবস্থিত। এর মূলত চারটি অনুষদ যার অধীনে ৪০টির বেশি বিভাগ, ইন্সটিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্র রয়েছে। ইম্পেরিয়াল ধারাবাহিকভাবেই বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে র‍্যাংক পায়।

৯।শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয় ঃ শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি ব্যক্তি মালিকানাধীন বিশ্ববিদ্যালয়। ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের শিকাগো শহরের হাইড পার্ক এবং তার পাশ্ববর্তী অঞ্চল জুড়ে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি অবস্থিত। ১৮৯০ সালে এটি প্রতিষ্ঠা করে যৌথভাবে “অ্যামেরিকান ব্যাপ্টিস্ট এডুকেশন সোসাইটি” এবং তেল ব্যবসায়ী জন ডি রকফেলার। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ক্লাস হয় ১৮৯২ সালের ১ অক্টোবর। এটি বিগ টেন সম্মেলনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। শিকাগোই যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় যেখানে মার্কিন বহু বিষয়ের সম্মিলনমূলক শিক্ষা পদ্ধতির সাথে জার্মান গবেষণা বিশ্ববিদ্যালয়মূলক শিক্ষা পদ্ধতির সংযোগ ঘটানো হয়।

১০।ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন ঃ ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন  হচ্ছে লন্ডনে অবস্থিত একটি পাবলিক গবেষণা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ফেডারেল লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় এর একটি অন্যতম প্রাচীন কলেজ। তালিকাভুক্তি অনুযায়ী এটি যুক্তরাজ্যের সব থেকে বড় স্নাতকোত্তর প্রতিষ্ঠানএবং পৃথিবীর বহুবিষয়ে অগ্রগামী গবেষণা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি।এটি ১৮২৬ সালে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় নামে প্রতিষ্ঠিত হয়, এটির প্রতিষ্ঠাতা জেরমি বেনথাম এর মৌলবাদী বিশ্বাসে উদ্বোধ হয়ে। ইউসিএল হচ্ছে লন্ডনে প্রতিষ্ঠিত প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠান, এবং ইংল্যান্ডের প্রথম প্রতিষ্ঠান যেখানে জাতপ্রথা নির্বিশেষে সকল ধর্মের শিক্ষানুরাগী ভর্তির সুযোগ পায়।ইউসিএল এমনকি ইংল্যান্ডের সবচেয়ে পুরনো তৃতীয় বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিযোগিতা করছে এবং নারী শিক্ষার্থীদের সর্ব প্রথম ভর্তির সুযোগ দেয়।


বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়,বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়,বিশ্বের সেরা ১০ বিশ্ববিদ্যালয়,বিশ্বের সেরা ১০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের,
বিশ্বের সেরা দশ বিশ্ববিদ্যালয়,বিশ্বের সেরা দশটি বিশ্ববিদ্যালয়,বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয় কোনটি,বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা,bd next web,বিডি নেক্সট ওয়েব,

 

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close