ভিডিও কনফারেন্সিং কি? ভিডিও কনফারেন্স এর সুবিধা

আপনারা আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন যে ভিডিও কনফারেন্সিং কি? ভিডিও কনফারেন্স এর সুবিধা সম্পর্কে কিছু তথ্য। “কনফারেন্স” শব্দের অর্থ হল এক সময়ে একাধিক ব্যক্তির সাথে আলোচনা বা মত বিনিময় করা। যেমন: আমরা সাধারণত অফিসে বসে করে থাকি। আর বর্তমান প্রযুক্তির যুগে এমনটাই ঘটে যখন একের অধিক মানুষ দূরত্বে বসে থাকলেও সবাই ভিডিওর মাধ্যমে একে অপরকে সরাসরি দেখতে ও শুনতে পায়, একে ভিডিও কনফারেন্সিং বলে।

সহজ কথায়, সরাসরি ভিডিওর মাধ্যমে যে মিটিং হয় তাকে ভিডিও কনফারেন্স বলে। পৃথিবীর যেকোন অবস্থানে থেকেও দুজনের মধ্যে একে অপরের ভিডিও দেখে তথ্য আদান-প্রদান করা সম্ভব হওয়ার কারণে ভিডিও কনফারেন্সিং এর গুরুত্ব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। দূরে অবস্থান করেও কাছে থাকার মত সেবা পাওয়া যায় বলে এটি এখন সকলেই ব্যবহার করছে।

ভিডিও কনফারেন্সিং

ভিডিও কনফারেন্সিং :- টেলিকমিউনিকেশন প্রযুক্তি ব্যবহার করে দুই বা ততোধিক ভৌগোলিক অবস্থানে অডিও বা ভিডিও এর যুগপৎ উভমুখী স্থানান্তর করার প্রক্রিয়াকে ভিডিও কনফারেন্সিং বলে।

ভিডিও কনফারেন্সিং হল একটি কনফারেন্সি সিস্টেম যেখানে অংশ গ্রহণকারীরা মনিটর বা স্ক্রিনে একে অপরকে মুখোমুখি দেখে কথোপকথনে অংশগ্রহণ করে। ভিডিও কনফারেন্সিং একটি ক্রমবর্ধমান আন্তর্জাতিক যোগাযোগ ব্যবস্থা। যে কেউ এক জায়গা থেকে বা এক দেশ থেকে অন্য দেশে ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে ভিডিও কনফারেন্সিং করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে কিছু বিশেষ সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে। বিভিন্ন সংস্থা সাধারণত এই উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সফটওয়্যার কোম্পানি দ্বারা তৈরি বাণিজ্যিক সফটওয়্যার ব্যবহার করে। তবে জনসাধারণের ক্ষেত্রে বিশ্বের অনেক দেশের মতো আমাদের দেশের মানুষ এখন খুব সহজেই স্কাইপ বা ইয়াহু মেসেঞ্জার ব্যবহার করে ভিডিও কনফারেন্সিং করে।

ভিডিও কনফারেন্স এর সুবিধা

ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে বর্তমান আমরা অনেক সুবিধা পেয়ে থাকি। যেমন;- পৃথিবীর যেকোনো স্থান থেকে সভায় অংশগ্রহণ করা যায়। যাতায়াতের প্রয়োজন হয়না বলে সময় ও অর্থ অপচয় হয় না। খুব কম খরচ। ভিডিও কনফারেন্সিং রেকর্ড করে রাখা যায়, ফলে যেকোনো সময় আবার দেখা যায়। এটি শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।ঘরে বসেই অভিজ্ঞ ডাক্তারের সাথে কথা বলে সেবা নেওয়া যায় এবং অনেক সময় বাঁচে ইত্যাদি।

বিঃদ্রঃ ভিডিও কনফারেন্সিং একটি ক্রমবর্ধমান আন্তর্জাতিক যোগযোগ ব্যবস্থা। এক জায়গা  থেকে বা এক দেশ হতে অন্য দেশে যেকোনো ব্যক্তি ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে ভিডিও কনফারেন্সিং করতে পারে। এজন্য বিশেষ কিছু সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.