ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি খরচ : ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে পড়ার খরচ কত? সকল বিষয়

বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে, তথ্য প্রযুক্তির এই দিনে বাংলাদেশে উচ্চশিক্ষা কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে এবং শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের লক্ষ্যে ২০০১ সালে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি (Brac University) প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০১ সালে বাংলাদেশি সমাজকর্মী ফজলে হাসান আবেদ এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন।

দেশের সেরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ‘ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি’ একটি অনন্য নাম। মানসম্মত উচ্চশিক্ষা এবং শিক্ষার সুনিবিড় পরিবেশ গড়ে তুলে ইতোমধ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে। দক্ষ ও যোগ্যতাসম্পন্ন শিক্ষক, যুগোপযোগী কারিকুলাম, গবেষণার যথাযোগ্য পরিবেশ, সমৃদ্ধ লাইব্রেরি, ব্যতিক্রমী নানা কার্যক্রম এখানকার শিক্ষার্থীদের মধ্যে এক ধরনের স্বাতন্ত্র্য তথা ভিন্নতা এনে দিয়েছে।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি খরচ

বাংলাদেশের একটি শীর্ষ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হল ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়টি উচ্চতর শিক্ষার প্রসারে বিভিন্নভাবে কাজ করছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রমে যুগোপযোগী জ্ঞানবিনিময়ের মাধ্যমে আধুনিক জ্ঞানে সমৃদ্ধ হচ্ছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সবাই।দেশের যে কোন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি খরচ বেশি হয়ে থাকে। ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি খরচ কেমন হতে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরার চেষ্টা করব।

পরীক্ষার আগে অ্যাডমিশন অফিস থেকে ৬০০ টাকার বিনিময়ে আবেদন পত্র সংগ্রহ করে তা পূরণ করে অফিসে জমা দিতে হবে।ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি খরচ হয় ১২,০০০ টাকা। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যেই অবস্থিত। সকল প্রকার তথ্য প্রশাসনিক ভবন থেকেই সংগ্রহ করা যায়। সেমিস্টারের কম্পিউটার ল্যাব ফি ১,৫০০ টাকা, স্টুডেন্ট একটিভিটি ফি ৬০০ টাকা এবং লাইব্রেরী ফি ৭৫০ টাকা।

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে পড়ার খরচ

৪টি ডিপার্টমেন্টের অধীনে ১৭টি বিষয় রয়েছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার জন্য ‘ডে’ এবং ‘ইভিনিং’ দুটি শিফট রয়েছে। মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা যারা জিপিএ – ৫ (গোল্ডেন) পেয়ে থাকে তারা ১০০% বৃত্তি লাভের সুবিধা পায়। দরিদ্র ভাইবোন ৫০% বৃত্তি লাভের সুবিধা পায় এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, স্বামী-স্ত্রীরা বৃত্তি সুবিধা পেয়ে থাকে। তবে একটি বিষয়ে স্নাতক পর্যায়ে কত খরচ হতে সে সম্পর্কে নিচে তুলে ধরা হল।

১।স্থাপত্যের স্নাতক

  • মোট ক্রেডিট- 201 ক্রেডিট
  • ফি- 14,26,000 টাকা

২।বিবিএ

  • মোট ক্রেডিট- 130 ক্রেডিট
  • ফি- ৮,৯১,০০০ টাকা

৩।সিএসই (বিএসসি)

  • মোট ক্রেডিট- 136 ক্রেডিট
  • ফি- 9,57,000 টাকা

৪।ইসিই (বিএসসি)

  • মোট ক্রেডিট- 36 ক্রেডিট
  • ফি- 9,27,000 টাকা

৫।EEE (বিএসসি)

  • মোট ক্রেডিট- 136 ক্রেডিট
  • ফি- 9,27,000 টাকা

৬।নৃবিজ্ঞানে বিএসএস

  • মোট ক্রেডিট- 120 ক্রেডিট
  • ফি- ৮,৩১,০০০ টাকা

৭।অর্থনীতিতে বিএসএস

  • মোট ক্রেডিট- 120 ক্রেডিট
  • ফি- ৮,৩১,০০০ টাকা

 ৮। ইংরেজিতে বি.এ

  • মোট ক্রেডিট- 120 ক্রেডিট
  • ফি- ৮,৩১,০০০ টাকা

৯। এলএলবি অনার্স

  • মোট ক্রেডিট- 135 ক্রেডিট
  • ফি- 9,21,000 টাকা

১০। পদার্থবিজ্ঞানে বিএসসি

  • মোট ক্রেডিট- 132 ক্রেডিট
  • ফি- 9,03,000 টাকা

১২। বিএসসি ইন এপিই

  • মোট ক্রেডিট- 130 ক্রেডিট
  • ফি- ৮,৯১,০০০ টাকা

১৩। গণিতে বিএসসি

  • মোট ক্রেডিট- 127 ক্রেডিট
  • ফি- ৮,৭৩,০০০ টাকা

১৪। বিএসসি ইন মাইক্রোবায়োলজি

  • মোট ক্রেডিট- 136 ক্রেডিট
  • ফি- 9,27,000 টাকা

১৫। ফার্মেসি ব্যাচেলর

  • মোট ক্রেডিট- 164 ক্রেডিট
  • ফি- 10,91,000 টাকা
 4 বছরের মধ্যে মোটামুটি এটির জন্য 10-10 লক্ষ টাকা লাগবে। যদি আপনি রিটেক বা কিছু না করেন।
এবং এটি আশার বিষয় যে আপনি যদি ব্র্যাকের কাছ থেকে বৃত্তি পাওয়ার ব্যবস্থা করেন তবে আপনার কাছে ছাড় হবে এবং এটি 50-100% পর্যন্ত হতে পারে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *